সমাজ কল্যাণ

সমষ্টিগত উন্নয়ন

 

নারী ক্ষমতায়ন

 

সমাজে মহিলাদের ক্ষমতা প্রদানের জন্য, মুকুল মাধব ফাউন্ডেশান, ফান্‌সপের গ্রামীণ মহিলা বিকাশ কেন্দ্রের মহিলাদের জন্য এবং ছাত্রছাত্রীদের মায়েদের জন্য মুকুল মাধব বিদ্যালয়ে একটি কম্পিউটার ক্লাস আরম্ভ করে। মুকুল মাধব বিদ্যালয়ের পরিসরে ২০১৩ সালের জুলাই মাসে অত্যন্ত কম পয়সার বিনিময়ে এই কোর্স প্রদান করা শুরু হয়। ক্লাসগুলি পরিচালনা করেন বিদ্যালয়েরই কম্পিউটার শিক্ষক মহাশয়।

আমরা আমাদের ছাত্রছাত্রীদের মায়েদের শিক্ষিত করা এবং তাঁদের ইংরাজি ভাষার সাথে পরিচয় করানোর গুরুত্ব বুঝি, কারণ এটিই পরবর্তীকালে তাঁদের কাছে তাঁদের ছেলেমেয়েদের অ্যাকাডেমিক ডেভেলপমেন্টের দায়িত্ব নেওয়ার কাজটি সহজ করে তুলবে। এই কথা মাথায় রেখে, এছাড়াও আমরা তাঁদের জন্য মৌলিক ইংরাজি প্রশিক্ষণ আরম্ভ করেছি।

এর অতিরিক্ত, গ্রামীণ মহিলা বিকাশ কেন্দ্রের মহিলাদের জন্য একটি ‘হস্তশিল্প কর্মশালা’-এর আয়োজন করা হয়েছিল, যাতে গ্রামের মহিলাদের কাছে তাঁদের অর্থ উপার্জনের ক্ষমতা বৃদ্ধি করার একটি সুযোগ করে দেওয়া যায়।

গ্রামবাসীদের দ্বারা সম্মুখীন হওয়া খাবার জলের সমস্যার সমাধানের উদ্দেশ্যে একটি ছোট ধাপ হিসেবে, গোলাপ গ্রামের আশেপাশে থাকা এলাকার সংশ্লিষ্ট গ্রামগুলির গ্রাম পঞ্চায়েতের সাহায্য নিয়ে, আমরা খাবার জল সরবরাহের প্রকল্প স্থাপনা করার অভিযান চালিয়ে গেছি।

‘রাষ্ট্রীয় গ্রামীণ পেয়জল যোজনা’-এর অধীনে ফিনোলেক্স, কোলাম্বে, ভাত্যা ও ফান্‌সপ গ্রামগুলির গ্রাম পঞ্চায়েতগুলিকে যথেষ্ট সাহায্য করেছে। যতদিন না এই যোজনাগুলির প্রণয়ন হয়, আমরা গ্রামগুলিতে কুয়ো থেকে জল সরবরাহ করি, তাঁদের পাম্প দিই, পাইপলাইনের ব্যবস্থা করে দিই ও জলের ট্যাঙ্ক দিই। বিদ্যমান জলের সরবরাহ জারি রাখার পাশাপাশি মেরামতির খরচ, ইলেক্ট্রিক বিল ইত্যাদি মেটানোর জন্যও কম্পানি গ্রাম পঞ্চায়েতগুলিকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করে।

 

জল সংরক্ষণ

 

‘আন্তর্জাতিক জল দিবস’ উপলক্ষে, আমরা একটি ভিডিও-এর মাধ্যমে আমাদের ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে মানুষের সামনে উপাস্থাপিত হই, যেখানে আমরা জল সংরক্ষণের গুরুত্ব সম্পর্কে সকলকে সচেতন করি। আমরা শ্রোতাদের শিক্ষিত করি ও বিভিন্ন সহজ উপায়ের বিষয়ে বলি, যেগুলির দ্বারা তাঁরা জল সংরক্ষণ করতে পারবেন এবং তাঁদের দৈনন্দিন জীবনে সেগুলি প্রয়োগ করতে পারবেন। মহারাষ্ট্রের অনেক এলাকা ভয়ানক অনাবৃষ্টির সম্মুখীন হয়েছিল এবং আমরা সেখানে অত্যন্ত জল সংকট দেখেছি, এবং তখনই আমরা সংকটাপন্ন কৃষক ভাইদের কাছে জল পৌঁছে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিই। এবছরেও মহারাষ্ট্রের বহু এলাকায় খরা থাকায় গভীর জল সংকট দেখা দিয়েছে। সেইজন্য, আমরা শহুরে শ্রোতাদের সাথে গ্রাম্য শ্রোতাদের একটি সম্পর্ক স্থাপনের রাস্তা দেখতে পাই। এই দৃষ্টিকোণ নিয়ে, আমরা মানুষজনকে জল সঞ্চয়ের জন্য অনুরোধ করি এবং সঞ্চিত জল মহারাষ্ট্রের লাতুরে জলাভাব থাকা এলাকাগুলিতে পৌঁছে দিই।

৫ই জুন, ২০১৫, ‘বিশ্ব পরিবেশ দিবস’ উপলক্ষে আমরা আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে একটি উদ্ভাবনী অভিযান আরম্ভ করি, যা হল #পানিকিতরহমতবাহাও (#জলেরমতোবইয়েদিওনা)। আমরা এই অভিযানটি একটি ভিডিও-এর মাধ্যমে, জল নষ্ট করার ফলে হওয়া সমস্যাগুলিকে উল্লেখ করে শুরু করি এবং জল সংরক্ষণ করার গুরুত্বের বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করি। জলকে ‘#জলেরমতোবইয়েদিওনা’ উক্তিটির মাধ্যমে জল সংরক্ষণ ও জল নষ্ট না করার উদ্দেশ্যে একটি দৃঢ় বার্তা সমাজের কাছে পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হয়েছে।

এছাড়াও, সিএসআর ক্রিয়াকলাপের এক অংশ হিসেবে, ফিনোলেক্স, গ্রামবাসীদের জল উপলব্ধ করানোর জন্য একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে। সেই অনুরূপ, ভাত্যে গ্রামের একটি কুয়োতে একটি জল পরিশোধনের ইউনিট বসানো হয়েছে, যার দ্বারা গ্রামবাসীরা অত্যন্ত উপকৃত হয়েছে।

 

দরদালান

ইনকয়েরি ফরম

কোন বাণিজ্য অনুসন্ধান কল জন্য

18002003466

ইনকয়েরি ফরম

নীচের বিবরণ পূরণ করুন এবং আমাদের নির্বাহী এক শীঘ্রই আপনার কাছে ফিরে পাবেন।